প্রসাশনকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে চালানো হচ্ছে অবৈধ টমটম ও অটোরিকশা।

সিটি প্রতিনিধিঃ মোস্তাফিজুর রহমান
  • Update Time : শুক্রবার, ৮ জুলাই, ২০২২
  • ১২৮ Time View

প্রসাশনকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে চালানো হচ্ছে অবৈধ টমটম ও অটোরিকশা।

চট্টগ্রাম নগরীর বন্দর থানাধীন ৩৮নং ওয়ার্ড ঈসান মিস্ত্রীর হাট মোড় এলাকায় প্রসাশনকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে চালানো হচ্ছে অবৈধ টমটম ও অটোরিকশা।

অবৈধ টমটম চালানোর ব্যাপারে ঔ এলাকার জনসাধারনরা গণমাধ্যমকে বলেন,ব্যাটারি চালিত টমটম ও অটোরিকশা এই গুলোর কোন বৈধ কাগজপত্র নেই,কাগজপত্র ছাড়া এই গাড়ীগুলো কিভাবে রাস্তায় চলাচল করে,প্রতিদিন সকাল হতে সন্ধে পযন্ত সল্টগোলা ক্রসিং মোড় এলাকায় জ্যামযট লেগে থাকে,এই ব্যাটারি চালিত টমটম ও অটোরিকশার কারনে।

তিনি বলেন,সল্টগোলা ক্রসিং এলাকায় যেসব টমটম চলছে,পার গাড়ী থেকে লাইন বাবদ দিনদৈনিক চাঁদা নেওয়া হচ্ছে ১৫০ টাকা করে, এই এলাকা দিয়ে চলাচল করছে ১২৫টি অবৈধ টমটম,নতুন ভাবে কেউ যদি এই লাইনে ইন হতে চায় সেক্ষেত্রে টোকন বাবদ চাঁদা দিতে হয় ৮০০০ হাজার টাকা,এই চাঁদার টাকা গুলো নিচ্ছেন,ডক্টর মাসুদ মাছুম ও টিপু।

তিনি আরও বলেন,এই তিনজনের বিরুদ্ধে বিগত,১৭ এপ্রিল ও ১৬ মে চাঁদাবাজির একটি সংবাদ একুশে পত্রিকায় প্রকাশিত হয়,এই টমটম অটোরিকশা গুলো আনন্দ বাজার টেকের মোড় হয়ে বড়পুল এলাকায় চলাচল করছে,এব্যাপারে পুলিশ প্রসাশনের কোন ভূমিকা নেই,বলে জানান।

অবৈধ টমটম চালানোর ব্যাপারে মাছুম ও ডক্টর মাসুদ এর মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে,মাছুম ও ডক্টর মাসুদ বলেন,১০টি টমটম আমার নামে চলাচল করছে,এক সময় আমি এই লাইনের পুড়া দ্বায়িত্ব পালন করতাম,বর্তমানে এই লাইনের কোন দ্বায়িত্ব আমার হাতে নেই,কে বা কাহারা এই চাঁদার টাকা উত্তোলন করে এব্যাপারে আমি কিছু জানি না বলে অশিকার করেন মাছুম ও ডক্টর মাসুদ।

অবৈধ টমটম এর ব্যাপারে সল্টগোলা ক্রসিং টিআই বশিরের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে টি আই বশির এর মুঠোফোনটি রিসিভ করেন নাই।

পরে টেকের মোড় ফাড়ির ইনচার্জ শরিফুজ্জামান এর মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন,আপনি আমার ওসি ও ডিসির সাথে কথা বলুন,এটা হচ্ছে ট্রাফিক বিভাগের কাজ,এব্যাপারে আমি কিছু জানি না,বলে মুঠোফোনটি কেটে দেন।

মাছুম ও ডক্টর মাসুদ এর কালেকশনকৃত ভিডিও ফুটেজ সহ জমাকৃত রয়েছে,

প্রথম পর্ব,১

দ্বিতীয় পর্বের জন্য চোঁখ রাখুন

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category