চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা (বন্দর ও পশ্চিম) বিভাগের অভিযান চালিয়ে জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের এনআইডি কার্ড তৈরী চক্রের ১০ সদস্য গ্রেফতার

কর্ণফুলী ডেক্স
  • Update Time : বুধবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২২
  • ৬৪ Time View

চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা (বন্দর ও পশ্চিম) বিভাগের অভিযান চালিয়ে জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের এনআইডি কার্ড তৈরী চক্রের ১০ সদস্য গ্রেফতার

উপ-পুলিশ কমিশনার(ডিবি-বন্দর ও পশ্চিম) জনাব মোহাম্মদ আলী হোসেন মহোদয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে
এবং অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার/জনাব সামীম কবির এর নির্দেশনায় বিশেষ টিমের এসআই মোহাম্মদ
রাজীব হোসেন ও এসআই মোঃ রবিউল ইসলাম এর নেতৃত্বে সঙ্গীয় স্পেশাল টিমের অফিসার এএসআই মোঃ
জাহিদুল হক, এএসআই রনি মজুমদার ও ফোর্সসহ ইং ২৫-১০-২০২২ তারিখে চট্টগ্রাম মহানগরের
হালিশহর থানাধীন, হালিশহর বি-ব্লক, হালিশহর হাউজিং এস্টেট উচ্চ বিদ্যালয়ে অভিযান পরিচালনা করে
এনআইডি কার্ড তৈরী চক্রের সদস্য আসামী ০১) মোঃ কামাল হোসেন ও মোহাম্মদ (৪৫) (রোহিঙ্গা), ০২)
পারভীন আক্তার(২৫) (রোহিঙ্গা) ০৩) মোঃ নুরুল আবছার (২৮), ০৪) শামসুর রহামন @ শামসু মাষ্টার
@ সোনা মিয়া(৬০), ০৫) মোঃ ইয়াছিন আরাফাত (২২), ০৬) মোঃ নুর নবী @ অনিক @ রাহাত(২৫),
(০৭) মোঃ মিজানুর রহমান (২৩), ০৮ ) ফরহাদুল ইসলাম (২৮), ০৯) ইমন দাশ (২০), ১০) মোঃ
কামাল (৪২) গণ-কে জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে এনআইডি কার্ড তৈরীর চেষ্টাকালে আকট করা হয়।
আটককালে তাদের হেফাজত হতে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক সরবরাহকৃত এনআইডি কার্ড তৈরির (ফরম-২)
এবং জন্ম নিবন্ধন ফরম উদ্ধার উদ্ধার করা হয়। আটককৃত ০৪ নং আসামী শামসুর রহামন @ শামসু মাষ্টার
@ সোনা মিয়া(৬০) কক্সবাজারের বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্প হতে রোহিঙ্গাদের সংগ্রহ করে আটককৃত ০৩ নং
আসামী মোঃ নুরুল আবছারকে সরবরাহ করে পরবর্তীতে মোঃ নুরুল আবছার বিভিন্ন মাধ্যমে উক্ত
রোহিঙ্গাদের জন্ম নিবন্ধন পত্র প্রস্তুত করে নির্বাচন কমিশনের সাথে এনআইডি কার্ড তৈরীতে চুক্তিবদ্ধ ডাটা
এন্ট্রি অপারেটর উপরোক্ত (৫-৯) নং আসামীদের সহযোগিতায় এনআইডি কার্ড তৈরীতে সহায়তা করত।
এই চক্রটি দীর্ঘদিন বিভিন্ন প্রকার জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের এনআইডিসহ বিভিন্ন প্রকার
ডকুমেন্ট তৈরী করে বিপুল অংকের অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছিল। গ্রেফতারকৃত ০৪ নং আসামী শামসুর রহামন @
শামসু মাষ্টার @ সোনা মিয়া (৬০) কক্সবাজার পোকখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান
শিক্ষক ছিলেন। রোহিঙ্গাদের এনআইডি কার্ড তৈরীর কাজে সম্পৃক্ততা পাওয়ায় তিনি চাকরীচ্যুত হন।
ইতিপূর্বে রোহিঙ্গাদের এনআইডি কার্ড তৈরীর কাজে যুক্ত থাকায় তাহার বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর থানার
মামলা নং-৪১(০৯)১৯, ধারা-২০০৯ সালের ভোটার তালিকা আইনের ১৮ এবং দুর্নীতি দমন কমিশন
সমন্বিত জেলা কার্যালয়-২ এর মামলা নং-০২, তাং-১৬/০৬/২০২১ দায়ের করা হয়েছিল। জিজ্ঞাসাবাদে
আটককৃতদের নিকট হতে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। এ চক্রের আরো অনেক সদস্য আছে যাদেরকে
গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যহত আছে। এই চক্রকে আটকের জন্য ডিবি পুলিশ দীর্ঘদিন কাজ করে
যাচ্ছিল। দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টায় আমরা এই চক্রের সদস্যদের আটক করতে সক্ষম হই।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category